১৮/০৬/২০২৪ ইং
Home / অন্যান্য / স্বাগত পবিত্র রমজানুল মোবারক

স্বাগত পবিত্র রমজানুল মোবারক

প্রকাশিত: শুক্রবার, ১লা এপ্রিল ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

নিউজ ডেস্ক: তালাশটিভি টোয়েন্টিফোর ডটকম

সওম বা রোজা :
সওম শব্দটি আরবি। এর বহুবচন সিয়াম। সওম অর্থ বিরত থাকা। ফারসি, উর্দু, হিন্দি ও বাংলায় সওমকে রোজা বলা হয়। মহান আল্লাহ তা’য়ালা বলেন, ‘হে ঈমানদাররা! তোমাদের প্রতি সিয়াম ফরজ করা হয়েছে, যেভাবে ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের জন্য; যেন তোমরা তাকওয়া অর্জন করতে পারো।’ (সুরা বাকারা; আয়াত-১৮৩)।

রোজার ফজিলত :
হযরত আবু হুরায়রা (রা:) বর্ণনা করেন, রাসুল (সা:) বলেন, ‘যে ব্যক্তি ঈমানের সঙ্গে সওয়াবের নিয়তে রমজান মাসে সওম পালন করবে, তার অতীতের সব গোনাহ ক্ষমা করে দেওয়া হবে।’ (বোখারী শরীফ : ১৯০১)। রাসুল (সা:) আরও বলেন, ‘যে ব্যক্তি ঈমানের সঙ্গে সওয়াবের উদ্দেশ্যে রমজান মাসের রাতে ইবাদত করবে, তারাবির নামাজ আদায় করবে, তার অতীতের সব গোনাহ ক্ষমা করে দেওয়া হবে।’ (বোখারী শরীফ : ৩৩)।

যাদের ওপর রোজা ফরজ :
প্রাপ্তবয়স্ক, সাধারণ বুদ্ধিমত্তা বা স্বাভাবিক জ্ঞানসম্পন্ন, রোজা পালনে সক্ষম, সুস্থ সব নারী ও পুরুষের জন্য রমজান মাসে রোজা পালন করা বাধ্যতামূলক। ঋতুমতী নারী, সন্তান প্রসবকারিণী মা ও অসুস্থ ব্যক্তি রোজা পরবর্তী সময়ে কাজা আদায় করবে।

রোজা রাখতে অক্ষম :
এমন অক্ষম ব্যক্তি, যে পুনরায় সুস্থ হয়ে রোজা পালনের সামর্থ্য লাভের সম্ভাবনা নেই, সে রোজার জন্য ফিদয়া দেবে। অর্থাৎ, প্রতিটি রোজার জন্য একটি সদকাতুল ফিতরের সমান দান করবে। জাকাত গ্রহণের উপযুক্তদেরই এ দান দেওয়া যাবে।

রমজানের বিশেষ রজনী :
রমজান মাসে রয়েছে দয়াময়ের করুণার পরম পূর্ণতার মহিমান্বিত রজনী লাইলাতুল কদর তথা মহিমাময় মর্যাদাপূর্ণ রাত। রাসুল (সা:) বলেন, ‘যে ব্যক্তি ঈমানের সঙ্গে সওয়াবের আশায় লাইলাতুল কদরে ইবাদত করবে, তার অতীতের সব গোনাহ ক্ষমা করে দেওয়া হবে।’ (বোখারী শরীফ : ৩৪)।

বিশেষ আমল :
পুরো রমজান জুড়ে রয়েছে ইবাদত-বন্দেগির বিশেষ আমল। দিনভর সিয়াম পালন, ইফতার, বিশ রাকাত তারাবির নামাজ, সাহরি, দান-সদকা, কোরআন তেলাওয়াত, কোরআন খতম ও বেশি বেশি ইস্তেগফার করা।

তারাবির বিধান :
বিশ রাকাত তারাবির নামাজ পুরুষদের মসজিদে জামাতের সঙ্গে আদায় করা সুন্নত। ওজরের কারণে যদি মসজিদে যাওয়া সম্ভব না হয় এবং জামাত করা না যায়, তখন একা পড়লেও পূর্ণ সওয়াব পাওয়া যাবে। এ মাসে তারাবির নামাজে পূর্ণ কোরআন শরীফ একবার পাঠ করা সুন্নত। একে খতম তারাবি বলা হয়। যারা সব সময় খতম তারাবি পড়ে থাকেন বা পড়ার ইচ্ছে রাখেন, তারা বিশেষ কোনো কারণে তা করতে না পারলেও এর পূর্ণ সওয়াব লাভ করবেন।

লিখক: মুহাম্মদ শাহাদাত হোসাইন
ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

বিশ্বের যে কোনো প্রান্ত থেকে দেশ-বিদেশের সব খবর সবার আগে জানতে ভিজিট করুন- talashtv24.com অথবা talashtv24

Print Friendly, PDF & Email

About newsdesk

Check Also

বঙ্গবন্ধুর ১০৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শওকত ইরফান রিয়াদের উদ্যোগে পবিত্র খতমে কুরআন ও দো’য়া অনুষ্ঠিত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *