২২/০৬/২০২৪ ইং
Home / অন্যান্য / অপরাধ / ফরিদপুরে আশ্রয়ণের নির্মাণাধীন ঘরে ভাংচুর!

ফরিদপুরে আশ্রয়ণের নির্মাণাধীন ঘরে ভাংচুর!

ফরিদপুরে আশ্রয়ণের নির্মাণাধীন ঘরে ভাংচুর!

সুমন বিশ্বাস (ফরিদপুর) :

প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৩ই জুলাই ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ফরিদপুরের মধুখালীতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের নির্মাণাধীন ঘরের দুটি পিলার ভেঙে ফেলেছে অজ্ঞাত কয়েকজন যুবক। উপজেলার মেগচামী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের কালিনগর এলাকায় রোববার রাতে এই ঘটনা ঘটে। সোমবার (১২ই জুলাই) দুপুরে জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট উপজেলা ও থানা প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এই ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ‘মুজিব বর্ষে একজন লোকও গৃহহীন থাকবে না’ শ্লোগানে আশ্রয়ণ প্রকল্পের-১ ও ২ এর আওতায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীনে এসব ঘর নির্মাণ হচ্ছে।

ভেঙে ফেলা ঘরের সুবিধাভোগী অখিল মন্ডল (৪৮) জানান, রোববার রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে ৪/৫ জন যুবক এসে নির্মাণাধীন ঘরের কাছে গিয়ে বলে- ‘আমরা ফরিদপুর থেকে এসেছি, ঘরগুলো ভালো করে তৈরি হচ্ছে না, তাই এগুলো ভাঙতে হবে। পরে ভালো করে তৈরি করে দিব। বলতে বলতে দুইটি পিলার ভেঙে ফেলে তারা।’ সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়কে বিষয়টি জানানো হয়েছে বলে জানানো হয়।

মধুখালীর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মোস্তফা মনোয়ার জানান, সরকারের অগ্রাধিকার আশ্রয়ণ প্রকল্পের-১ ও ২ এর আওতায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীনে নির্মাণাধীন মেগচামী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডে অখিল মন্ডলসহ পাঁচ জনের জন্য পাঁচটি ঘর নির্মাণ চলমান রয়েছে। সকালে জানতে পারি কে বা কাহারা রাতের বেলায় দুইটি পিলার ভেঙে ফেলেছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আমরা থানায় মামলা দাখিল করব।

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার জানান, “সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য একটি কুচক্রী মহল এ ঘটনা ঘটাতে পারে। কোনো অন্যায়কারীকে ছাড় দেওয়া হবে না। বিষয়টির সঠিক তদন্তের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।” মধুখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রথীন্দ্রনাথ তরফদার জানান, ঘটনা স্থল পরির্দশন করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত চলছে, অভিযোগ পেলেই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

About newsdesk

Check Also

বঙ্গবন্ধুর ১০৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শওকত ইরফান রিয়াদের উদ্যোগে পবিত্র খতমে কুরআন ও দো’য়া অনুষ্ঠিত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *